কবিরাজের চিকিৎসায় ঝ’ল’সে গেল গৃ’হব’ধূর মু’খ

কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে নারী কবিরাজের চিকিৎসায় এক গৃহবধূর মুখ ঝলসে গেছে। এলাকাবাসী ওই কবিরাজ ছকিনা বেগম ও তার সহযোগী জাহানারা বেগমকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে। সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার দেওয়ানের খামার গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মুখ ঝলসে যাওয়া ওই নারী বর্তমানে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

মুখ ঝলসে যাওয়া ওই নারীর স্বামী আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, তার স্ত্রী বেশ কিছুদিন যাবত বিভিন্ন রোগে ভুগেছিলেন। নিয়মিত চিকিৎসা চলছিলো কিন্তু শারীরিক উন্নতি হচ্ছিল না। এরই মধ্যে নাগেশ্বরী উপজেলার উত্তর ব্যাপারি হাট এলাকার ছকিনা বেগম নামের ওই নারী কবিরাজের খোঁজ মেলে। ওই নারী কবিরাজ নিয়মিত তার প্রতিবেশী আমিনুরের বাড়িতে চিকিৎসা দিতে আসতো। সোমবার সকালে ওই নারীকে চিকিৎসার জন্য কবিরাজের কাছে নেয়া হয়।

তিনি আরও জানান, চিকিৎসা দেওয়ার নামে সেখানে কি হয়েছে বা কবিরাজ তার মুখে কি লাগিয়েছে তা জানা নেই। তবে তার স্ত্রীর মুখে ফোসকা পড়েছে। শরীরে বিভিন্ন দাগের চিহ্ন রয়েছে। রোগী সুস্থ না হলে কবিরাজের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ভূরুঙ্গামারী হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. নাইমা হক আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, ওই নারীর মুখের অধিকাংশই ঝলসে গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে দাহ্য জাতীয় কোনো পদার্থে এমন হয়েছে। তার শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. এ,এস,এম সায়েম আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, গৃহবধূকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
ভূরুঙ্গামারী থানার ওসি আলমগীর হোসেন আরটিভি নিউজকে জানিয়েছেন, এলাকাবাসী এক নারী কবিরাজ ও তার সহযোগীকে আটক করে পুলিশের নিকট হস্তান্তর করেছে। তারা দুইজন এখন পুলিশ হেফাজতে আছেন। এখন পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেননি। অভিযোগ পেলে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

About desk

Check Also

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হিযবুত তাহরীর সদস্য গ্রে’ফ’তা’র।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় হিযবুত তাহরীর (নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন) এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। গত শুক্রবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *