ফেলে যাওয়া শিশুকে বুকের দুধ পান করিয়ে বাঁচালেন নারী পুলিশ

ফেলে যাওয়া দু’মাস বয়সী এক শিশুকে বুকের দুধ পান করিয়ে প্রশংসিত এক নারী পুলিশ।প্রসংশায় ভাসছেন প্রিয়াংকা নামের ওই নারী কনস্টেবলের স্বামীও। স্ত্রীর মতো তিনিও একজন পুলিশ কনস্টেবল।সোমবার রাতে ভারতের হায়দরাবাদের আফজালগঞ্জ থানা এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।
ঘটনার বিস্তারিত সম্পর্কে জানা যায়, মানবিকতার নজির গড়া ওই মহিলা পুলিশ কর্মীর নাম প্রিয়াঙ্কা। তিনি তেলেঙ্গানা রাজ্যের হায়দ্রাবাদ শহরের দায়িত্বরত পুলিশ কনস্টেবল।

প্রিয়াঙ্কা জানান, গত রবিবার রাতে তার স্বামী রবিন্দর তাকে ফোন করে দ্রুত থানায় যেতে বলেন। তার স্বামীও পেশায় একজন পুলিশ। হায়দ্রাবাদের আফজলগঞ্জ পুলিশ স্টেশনে কন্সটেবলের চাকরি করেন তিনি। সেখান থেকেই প্রিয়াঙ্কাকে ফোন করেন তিনি।

সেসময় প্রিয়াঙ্কা বাড়িতে ছিলেন। স্বামীর ফোন পেয়ে দ্রুত গাড়ি ভাড়া করে স্টেশনে যান তিনি। সেখানেই জানতে পারেন, দুই মাসের এক দুধের শিশুকে খুঁজে পাওয়া গেছে। কিন্তু তার বাবা-মার খোঁজ মিলছে না।প্রিয়াঙ্কা আরো জানান, সেখানে গিয়ে দেখি দুই মাসের শিশুটি ক্ষিদার জ্বালায় ছটফট করছে। অনেক কান্নাকাটি করছে। আমিও একজন মা, আমারো ছোট বাচ্চা আছে, তাই বুঝতে পেরেছি কি করতে হবে।এসময় প্রিয়াঙ্কা শিশুটিকে বুকে জড়িয়ে নিয়ে স্তন্যপান করান, এরপর শিশুটি কান্না থামিয়ে ঘুমিয়ে পড়ে। এরপর কুড়িয়ে পাওয়া শিশুটির মাকে খুঁজতে অভিযানে নামে পুলিশ।পরবর্তীতে শিশুটির মাকে খুঁজে পায়। এরপর শিশুটিকে মায়ের হাতে তুলে দেয় পুলিশ।

জানা যায়, হায়দরাবাদের ওসমানিয়া জেনারেল হাসপাতালের কাছে মদ খেয়ে শিশুকে এক ব্যক্তির হাতে দিয়ে ভুলে চলে গিয়েছিলেন ওই শিশুর মা। এমন ঘটনায় সবার বাহবা পাচ্ছেন প্রিয়াঙ্কা। প্রিয়াঙ্কার এমন মানবিকতাকে সবাই শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন। এছাড়া হায়দ্রাবাদ পুলিশ কমিশনারের পক্ষ থেকে ওই দম্পতিকে পুরষ্কার দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

About desk

Check Also

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় হিযবুত তাহরীর সদস্য গ্রে’ফ’তা’র।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় হিযবুত তাহরীর (নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন) এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব। গত শুক্রবার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *