মায়ের দেনা শোধ করতে বক্সিং রিংয়ে ৯ বছরের শিশু

মায়ের দেনা শোধ করতে মানুষ কত কিছুই না করে। এই কাজের জন্য কোনো শিশু যদি বক্সিং রিংয়ে নামে, তবে চোখ কপালে উঠতে বাধ্য। তবে শুনতে অবাক লাগলেও বাস্তবেই এমন কাণ্ড করেছে থাইল্যান্ডের শিশু টাটা।

টাটার বয়স মাত্র ৯ বছর। বাচ্চা হলেও তার সাফল্য ঈর্ষণীয়। এরই মধ্যে ৮০ শতাংশ ম্যাচে জিতেছে এই লিটল চ্যাম্প। তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শিশুদের এমন বক্সিং প্রতিযোগিতায় মানসিক ভারসাম্য হারানোর ভয় রয়েছে।

ইচ্ছে করে যে টাটা এই পেশায় এসেছেন, এমন নয়। করোনায় অভুক্ত পরিবারের মুখে খাবার তুলে দিতেই বাধ্য হয়ে নাম লেখান বক্সারের খাতায়। এখন পর্যন্ত ২০ ম্যাচের ১৫টিতেই প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করেছেন টাটা। প্রতিযোগিতা থেকে অর্জিত অর্থ দিয়ে মিটিয়েছেন মায়ের দেনা।

টাটার মা সন্তানের বিষয়ে বলেন, ছেলের বক্সিংয়ের টাকা দিয়েই এখন আমার সংসার চলে। শেষ ম্যাচ জিতে যে টাকা সে পেয়েছে তা দিয়েও দেনা পরিশোধ করেছি। টাকার যোগ বিয়োগ না বুঝলেও মাকে সুখে রাখতে বক্সিং চালিয়ে যেতে চায় এই ক্ষুদে বক্সার।

থাইল্যান্ডে এমন ক্ষুদে বক্সারের সংখ্যা ৩ লাখের বেশি। বিশেষজ্ঞদের মতে, এই বয়সে বক্সিং রিংয়ে নামা শিশুদের মানসিক ভারসাম্য হারানোর ঝুঁকি প্রায় শতভাগ। এর আগে ২০১৮ সালে থাইল্যান্ডে বক্সিং ম্যাচ চলাকালীন মাথায় আঘাত পেয়ে মারা যায় ১৩ বছর বয়সী এক বক্সার।

About desk

Check Also

স্ত্রীকে বৃ’দ্ধে’র কাছে বি’ক্রি করে ফোন কি’ন’লো স্বা’মী!

বিয়ের মাত্র দু’মাস পরেই নিজের স্ত্রীকে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক কিশোরের বিরুদ্ধে। অভিযুক্ত …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *