Breaking News

স’ন্তা’ন জ’ন্ম দেয়ার পরদিনই হাসপাতাল থেকে প্রেমিকের সা’থে উ’ধাও গৃ’হ’বধূ

যশোর ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট্য জেনারেল হাসপাতালে সদ্যজাত সন্তানকে ফেলেই পালিয়েছেন এক গৃহবধূ (২০)। বুধবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে। তবে বৃহস্পতিবার পরিবারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে থানায় যোগাযোগ করা হলে বিষয়টি জানাজানি হয়। পালিয়ে যাওয়া গৃহবধূ যশোর শহরের স্টেডিয়াম পাড়ার শাহিনুর হোসেনের স্ত্রী।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, সোমবার দিবাগত রাত একটার দিকে ওই গৃহবধূ তার প্রেমিক ইব্রাহিমকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন। মঙ্গলবার দুপুর একটায় সিজারের মাধ্যমে তিনি একটি ছেলে সন্তানের জন্ম দেন। পরদিনই শিশুটিকে হাসপাতালে রেখে নিখোঁ’জ হন ওই গৃহবধূ।

এদিকে, হাসপাতালের ভর্তি রেজিস্ট্রারে শিশুটির বাবার নাম শাহিনুর লেখা হলেও প্রেমিক ইব্রাহিমকে স্বামী হিসেবে পরিচয় দেন ওই নারী। ঠিকানা স্টেডিয়াম পাড়া লেখা হলেও জরুরি যোগাযোগের জন্য দেওয়া ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।
দুদিন ধরে হাসপাতালের সেবিকাদের তত্বাবধানে ছিল শিশুটি। এরমধ্যে পরিবারের লোকজন গোপনে ওই গৃহবধূর খোঁ’জ করছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত না পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ হন তারা। পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুটিকে তার নানা-নানীর হাতে তুলে দেন।

এ বিষয়ে শিশুটির বাবা কোনো মন্তব্য করতে চাননি। তবে শিশুটির নানা শাহ আলম সাংবাদিকদের বলেন, ২০২০ সালে শাহিনুরের সাথে তার মেয়ের বিয়ে হয়। এরপর থেকে তারা ঢাকায় থাকতেন। কিছুদিন আগে সন্তান জন্ম দিতে মেয়ে মাগুরায় বাবার বাড়িতে আসেন। এসময় ভোলা জেলার খয়েরতলা এলাকার ইব্রাহিম নামের এক যুবকের সাথে তার পরিচয় হয়। ইব্রাহিমই তার মেয়েকে ফুঁ’স’লিয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করান। সেখানে সন্তান জন্ম নেওয়ার পর ইব্রাহিম তার মেয়েকে নিয়ে পা’লিয়েছেন।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) ডা. আরিফ আহম্মেদ বলেন, পুলিশের মধ্যস্থতায় নানা শাহ আলমের কাছে শিশুটিকে হস্তান্তর করা হয়েছে। যশোর কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তাজুল ইসলাম বলেন, ইব্রাহিম ও ওই গৃহবধূকে খুঁ’জে বের করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

About desk

Check Also

বিয়ের দাবিতে তরুণীর অনশন, সপরিবারে পালাল প্রেমিক

নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নে মোমিন আলী নামে এক যুবকের বাড়ির সামনে বিয়ের দাবিতে অনশন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *