Breaking News

স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি নিয়ে আবারো সিদ্ধান্ত বদলালো শিক্ষা মন্ত্রণালয়

প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাপ্তাহিক ছুটির বিষয়ে নতুন সিদ্ধান্ত হয়েছে। ছুটির বিষয়টি নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রমের রূপরেখায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়। সম্প্রতি ওই রূপরেখা অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এনসিটিবির সদস্য (শিক্ষাক্রম) অধ্যাপক মশিউজ্জামান গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, নতুন জাতীয় শিক্ষাক্রমের রূপরেখায় স্কুল-কলেজে সাপ্তাহিক ছুটি ২ দিন রাখা হয়েছে। ২০২৩ সাল থেকেই নতুন এ শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন শুরু হবে।

জানা গেছে, সাপ্তাহিক দু’দিনের ছুটির বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় চাইলে শিক্ষাক্রম বাস্তবায়নের আগেও চালু করতে পারে।
পরিমার্জিত শিক্ষাক্রমের রূপরেখায় দু’দিন ছুটির প্রস্তাব করা হয়। ১৩ সেপ্টেম্বর নতুন শিক্ষাক্রমের একটি রূপরেখা প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করা হলে তিনি তা অনুমোদন দেন। ওই দিনই শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি নতুন শিক্ষাক্রম নিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন।

শিক্ষামন্ত্রী জানান, ২০২২ সালে নতুন শিক্ষাক্রমের পাইলটিং করা হবে। ২০২৩ সাল থেকে এর বাস্তবায়ন শুরু হবে। ২০২৫ সালের মধ্যে মাধ্যমিক পর্যায়ের কারিকুলাম বাস্তবায়ন সম্পন্ন হবে। একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষাক্রম বাস্তবায়ন করা হবে ২০২৬ ও ২০২৭ সালে।

জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড (এনসিটিবি) সূত্রে জানা যায়, ২০২০ সালে শিক্ষাক্রম পরিমার্জন প্রস্তাবে বলা হয়েছিল, ছুটি বাড়লেও শিক্ষার্থীদের শিক্ষা কার্যক্রমের ক্ষতি হবে না। তাদের শিক্ষা গ্রহণের সময় কমবে না। আন্তর্জাতিক মান বজায় রেখেই এই প্রস্তাব করা হয়। এতে শিক্ষার্থীদের ওপর শারীরিক ও মানসিক চাপ কমবে বলেও জানানো হয়।

এনসিটিবি জানায়, বিদ্যমান সাপ্তাহিক ও অন্যান্য ছুটি ধরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বছরে ক্লাস চলে ২১৫ দিন। শনিবার ছুটি হলে ক্লাস হবে ১৮৫ দিন।

About desk

Check Also

কাজুর দুধেই লুকিয়ে আছে ভালো ঘুমের রহস্য

দানাদার খাবারের মধ্যে কাজু বাদামের জুড়ি নেই। কাজু বাদাম চিবিয়ে ও রান্না করেও খাওয়া যায়। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *