৫ বছর পর সরকারী চাকরীর বয়স সীমা ৩৫ করা নিয়ে আন্দোলন

যারা এখন করোনায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়ার ঘোর বিরোধী, তারাই ৫ বছর পর সরকারী চাকরীর বয়স সীমা ৩৫ করা নিয়ে আন্দোলন করবে।

বিশেষ করে, পাবলিকের ভাই বোনেরা তোমাদের কি প্রাইভেটের মত রেগুলার ক্লাস পরীক্ষা হচ্ছে?? এমনিতেই আমরা সেশন জটে ওদের চেয়ে ১/২ বছর পিছিয়ে থাকি চাকুরির বাজারে। এই করোনায় পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে। কত ছেলে মেয়ে হয়তো ১মাসের জন্য আটকে আছে। তার বাবা মা হয়তো তার ছেলের উপার্জনের দিকে তাকিয়ে আছে।

করোনার কারনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়া আর কিছু কি বন্ধ আছে এই দেশে?

যারা খুব চিন্তিত, তাদের অনেক কে দেখছি ঘুরে বেড়াতে, যেখানে সেখানে যেতে। শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গেলেই তার জোর সম্ভাবনা আছে করোনা আক্রান্ত হওয়ার।

টেস্ট নাই, কিট নাই, নিয়ম মানি নাই, ফেইক রিপোর্ট এত কিছুর পরও আমি বলব, আমরা ভারত, ব্রাজিল বা আমেরিকার চেয়ে অনেক ভালো আছি এই সময়। বিচ্ছিন্ন ঘটনা যে ঘটেনি তা না, কিন্তু, এতদিন যদি ওদের মত হতো আমাদের অবস্থা, তাহলে প্রতিদিন রাস্তায় হাজার হাজার লাশ পড়ে থাকত।

হাজার হোক, বুড়িগংগা, শীতলক্ষ্যার তীরবর্তী মানুষজন কে করোনা আসলেও তেমন কিছুই করতে পারে নাই।

এটা আমার ব্যক্তিগত মতামত। অধিকাংশের সাথেই মিলবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *