Breaking News

আদালতে আসামির প্রক্সি দিতে গিয়ে ধরা

মামলার শুনানির সময় এক আসামির নাম ডাকা হলে একসঙ্গে একাধিক ব্যক্তি হাত তোলেন। এতে সন্দেহ হলে আসামির নাম-ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে ঠিকভাবে উত্তর দিতে পারেননি। পরিচয়পত্র দেখাতে বললে সেটিও দেখাতে ব্যর্থ হন। পরে পুলিশ তাদের নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে মূল আসামিদের প্রক্সি দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন তারা।

বুধবার বিকালে ময়মনসিংহের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ঘটে এমন ঘটনা। পরে রাতে তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করা হয়েছে।
কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহ কামাল আকন্দ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেপ্তাররা হলেন- কিশোরগঞ্জের তাড়াইলের সোহেল মিয়া (৩০), ময়মনসিংহের নান্দাইলের মো. ওয়ালিউল্লাহ (২৬), রফিকুল ইসলাম (৩৫), সাইফুল ইসলাম (৩০) ও নুরুল্লাহ (২৮)।
ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, আদালতের ৫ম তলায় যথারীতি বিচার কার্যক্রম পরিচালনা করছিলেন সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আরিফুল ইসলাম। এদিন তিনি নান্দাইলের একটি মারামারির মামলার পলাতক পাঁচ আসামির জামিন শুনানি করছিলেন। তবে শুনানিতে পলাতক পাঁচ আসামি হাজির না হয়ে তাদের বদলে অন্য পাঁচজন এজলাসে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন।

মামলার শুনানির সময় আসামির নাম ডাকা হলে একসঙ্গে একাধিক ব্যক্তি হাত তোলেন। পরে আসামিদের নাম-ঠিকানা জিজ্ঞাসা করলে তারা উল্টাপাল্টা উত্তর দিতে থাকেন। এসময় তাদের পরিচয়পত্র দেখাতে বললে সেটিও দেখাতে ব্যর্থ হন তারা। এতে বিচারকের সন্দেহ হলে থানা পুলিশকে খবর দেয়া হয়।

ওসি বলেন, পুলিশ গিয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে, তারা প্রক্সি দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন এবং তাদের আসল পরিচয় দেন। পরে তাদের আটক করে থানায় এনে তাদের বিরুদ্ধে নিয়মিত মামলা করা হয়।

About desk

Check Also

আজব অসুখ, ফোন হাতে নিলেই মুহূর্তে গায়েব সব ডেটা

ধরুন আপনার হাতের ফোনটি কাউকে দিয়েছেন। কিছুক্ষণ পরেই হঠাৎ জানতে পারলেন আপনার সব ডেটা শেষ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *