Breaking News

মাত্র পাওয়াঃ অবশেষে চূড়ান্ত করা হলো মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের ক্লাস রুটিন।

মঙ্গলবার মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরে (মাউশি) দেশের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের প্রধানদের সঙ্গে বৈঠক করে এ রুটিন তৈরি করা হয়েছে।
বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, এবার (২০২১ সালের) এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সপ্তাহে ৬ দিন ক্লাস হবে, আর আগামী বছর বা ২০২২ সালের পরীক্ষার্থীদের দুদিন ও অন্য শ্রেণির ক্লাস সপ্তাহে ৪ দিন হবে।

এটিকে মৌলিক রুটিন ধরে স্কুলগুলো তাদের ছাত্রছাত্রীর সংখ্যা অনুযায়ী অভ্যন্তরীণ কর্মতালিকা তৈরি করবে। এ সংক্রান্ত নির্দেশনাসহ রুটিন দুএকদিনের মধ্যে মাউশির ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।
মাউশির মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গোলাম ফারুক জানান, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের আলোচনা করে শ্রেণি কার্যক্রম পরিচালনার জন্য মৌলিক রুটিন তৈরি করা হয়েছে। সেটি অনুসরণে সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে রুটিন ও ক্লাস পরিচালনা করতে হবে।

প্রস্তাবিত নতুন ক্লাস রুটিনে দেখা গেছে, ২০২১ সালের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের সপ্তাহে শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার দুটি করে বিষয়ের চারটি ক্লাস নেয়া হবে। ২০২২ সালের এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের শনিবার ও রোববার দুটি বিষয়ের চারটি ক্লাস হবে। এছাড়া ৬ষ্ঠ শ্রেণির ক্লাস সোমবার, ৭ম শ্রেণির মঙ্গলবার, ৮ম শ্রেণির বুধবার ও ৯ম শ্রেণির ক্লাস বৃহস্পতিবার নেয়া হবে। মাধ্যমিকের সব স্তরে প্রতিদিন দুটি বিষয়ের চারটি করে ক্লাস করানো হবে।

প্রস্তাবিত পরিকল্পনায় আরো বলা হয়েছে, স্কুল-কলেজে প্রভাতী শিফট সকাল সাড়ে ৭টায় শুরু হয়ে ১১টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত ও দিবা ১২টা ৪০ মিনিটে শুরু হয়ে ৪টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত চলবে। একটি শিফট শেষে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন কাজের জন্য এক থেকে দেড় ঘণ্টা বিরতি দিতে হবে।

তবে শিক্ষার্থীদের প্রতিটি আগের নিয়মে ৪৫ মিনিটের পরিবর্তে ৪০ মিনিট করে ক্লাস নেয়া হবে। যে সব মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে প্রাথমিক স্তর যুক্ত রয়েছে সেখানে এ সময়ের সঙ্গে সমন্বয় করে ক্লাস রুটিন তৈরি করতে হবে। সব ছাত্রছাত্রীকে ক্লাসে তিন ফুট দূরত্বে বসাতে হবে।

এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের এ বছর তিনটি করে বিষয়ে পরীক্ষা হবে। মূলত এসব বিষয়ের ক্লাস এখন হবে।

করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্ধ থাকা দেশের প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে একযোগে খুলছে।

সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, সব দিন শিক্ষার্থীদের স্কুলে যেতে হবে না। শুধু পিইসি, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা দৈনিক ক্লাস করবে। বাকিদের একদিন সরাসরি পাঠদান হবে। সপ্তাহের বাকি দিনগুলো অনলাইনে বা টেলিভিশনে দূরশিক্ষণে পাঠদান চলবে।

গত বছরের ৮ মার্চ দেশে করোনার সংক্রমণ শুরু হওয়ার পর ১৭ মার্চ থেকে সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটি ঘোষণা করা হয়। এ পর্যন্ত গত ১৭ মাসে দফায় দফায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ানো হয়।

About desk

Check Also

সুখবরঃ মাঠ প্রশাসনে ৪ হাজার ২০৭ পদে নিয়োগ শিগগিরই

মাঠ প্রশাসনে নিয়োগবিধি সংশোধন, অবসর, মৃত্যু, পদোন্নতি ও নতুন পদ সৃজনের কারণে শুন্য আছে ৫ …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *