Breaking News

মাত্র পাওয়াঃ শেরপুরে প্রতিবেশীর ধাক্কায় প্রাণ গেল মাদরাসা শিক্ষকের

বগুড়ার শেরপুর উপজেলা বাঁশঝাড় নিয়ে দ্বন্দ্বে প্রতিবেশীর ধাক্কায় মাওলানা লুৎফর রহমান (৭০) নামের এক বৃদ্ধ ঘটনাস্থলেই নিহত হন।বুধবার সকাল ৯টায় গাড়ীদহ মডেল ইউনিয়নের রামেশ্বরপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত মাওলানা লুৎফর রহমান রামেশ্বরপুর গ্রামের মৃত হাছেন আলীর ছেলে ও নগর জেএম সিনিয়র মাদরাসার সাবেক অধ্যক্ষ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মাওলানা লুৎফর এক বছর আগে বাঁশঝাড়সহ ৩ শতক জমি ক্রয় করেন। সেখানে প্রতিবেশী মৃত আব্দুল হামিদের ছেলে আব্দুল মান্নান (৩৫) ও মামুন (৪৫) ময়লা আবর্জনা ফেলতেন। ১ মাস আগে এ নিয়ে তাদের মাঝে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে এলাকাবাসী বৈঠক বসে বিষয়টি মীমাংসা করে দেয়।

বুধবার সকালে সেখানে নিহত মাওলানা লুৎফর রহমানের ছেলে কাহালু উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত ডা: মো মশিউল আলম গাছ লাগাতে যান। এ সময় মামুন ও মান্নানসহ কয়েকজন ডা: মশিউল আলমকে বাঁশ ও লাঠি দিয়ে মারধর করেন। এ সময় তার চিৎকারে বাবা লুৎফর রহমান এগিয়ে গেলে মামুন তাকে মারধর করে ধাক্কা দিলে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ঘটনাস্থলেই তার মৃত হয়।

প্রতিবেশী আবু তাহের জানান, আমার বাড়ির পাশে হট্টগোল দেখে এগিয়ে দেখতে পাই মান্নান ও মামুনসহ নারীরা বাঁশ ও লাঠি দিয়ে ডা: মশিউলকে মারধর করছে। পরে তার বাবা এগিয়ে এলে মামুন তাকে মারধর করে বুকে ধাক্কা দিলে মাটিতে পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়।

লুৎফর রহমানের ভাতিজি মুকতাসিনা জানান, আমার জ্যাঠোকে মামুন ধক্কা দিলে তিনি মাটিতে পড়ে যান। আমি তাকে পানি খাওয়াতে নিলে তখন আমার কোলেই মারা যান।

এ বিষয়ে শেরপুর থানা উপ-পরিদর্শক সাচ্চু বিশ্বাস জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া করা হবে।

About desk

Check Also

আজব অসুখ, ফোন হাতে নিলেই মুহূর্তে গায়েব সব ডেটা

ধরুন আপনার হাতের ফোনটি কাউকে দিয়েছেন। কিছুক্ষণ পরেই হঠাৎ জানতে পারলেন আপনার সব ডেটা শেষ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *